বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১০ বাণী

Rate this post

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাহিত্যকর্ম লিখে শেষ করা যাবেনা।তিনি এমন একজন গুণী লেখক যার সাহিত্যের সকল শাখাতেই ছিল সমান দক্ষতা। নাটক,উপন্যাস,কবিতা,ছোট গোল্প,সংগীত ও দর্শন শাস্ত্রে তার সমান দক্ষতা ছিল। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এমন কিছু উক্তি লিখে গেছেন যেগুলো পাঠক সমাজকে বিমোহিত করে চলেছে যুগের পর যুগ।চলুন আমরা বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এমন কিছু উক্তি দেখে আসি।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১০ বাণী
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাণী

কাজী নজরুল ইসলামের সেরা বাণীর তালিকা

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা বাণীর তালিকা

১. “এরা সুখের লাগি চাহে প্রেম, প্রেম মেলে না, শুধু সুখ চলে যায় ”

২. “অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সহে তবে ঘৃণা তারে যেস তৃণসম দহে।”

৩. “সামনে একটা পাথর পড়লে যে লোক ঘুরে না গিয়ে সেটা ডিঙ্গিয়ে পথ সংক্ষেপ করতে চায় – বিলম্ব তারই অদৃষ্টে আছে।”

৪. “আগুনকে যে ভয় পায়, সে আগুনকে ব্যবহার করতে পারে না।”

৫. “নারীর প্রেমে মিলনের গান বাজে, পুরুষের প্রেমে বিচ্ছেদের বেদনা”

৬. “নিজের অজ্ঞতা সম্বন্ধে অজ্ঞানতার মতো অজ্ঞান আর তো কিছু নাই।”

৭. “যার সঙ্গে মানুষের লোভের সম্বন্ধ তার কাছ থেকে মানুষ প্রয়োজন উদ্ধার করে, কিন্তু কখনো তাকে সম্মান করে না”।

৮. “ বিয়ে করলে মানুষকে মেনে নিতে হয়, তখন আর গড়ে নেবার ফাঁক পাওয়া যায় না”।

৯. “ আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়; একটি হচ্ছে জ্ঞান এবং অপরটি হচ্ছে প্রেম ”

১০. “মনুষ্যত্বের শিক্ষাটাই চরম শিক্ষা আর সমস্তই তার অধীন।”

১১. ” প্রেম যাহা দান করে , সেই দান যতই কঠিন হয়, ততই তাহার সার্থকতার আনন্দ নিবিড় হয় । ”

১২. “ আমি তোমাকে অসংখ্য ভাবে ভালবেসেছি, অসংখ্যবার ভালবেসেছি, এক জীবনের পর অন্য জীবনেও ভালবেসেছি, বছরের পর বছর, সর্বদা, সবসময়। ”

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.